April 23, 2021

আমাদের খবর

খবরের সাথে সব সময়

জামাল ভূঁইয়া জিতেছেন কলকাতার হৃদয়।

1 min read
জামাল ভূঁইয়া জিতেছেন কলকাতার হৃদয়

জামাল ভূঁইয়া জিতেছেন কলকাতার হৃদয়। চার্চিল ব্রাদার্সের বিপক্ষে আজকের ম্যাচ দিয়েই শেষ হচ্ছে জামাল ভূঁইয়ার কলকাতা মোহামেডান মিশন। নেপালে অনুষ্ঠেয় ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টের জন্য বাংলাদেশ অধিনায়ককে ছেড়ে দিচ্ছে কলকাতা মোহামেডান।

শেষ ম্যাচের আগে গতকাল ম্যাচ-পূর্ববর্তী ভার্চুয়ালি সংবাদ সম্মেলনে জামালকে নিয়ে বেশি কথা বলেছেন কলকাতা মোহামেডানের কোচ শঙ্করলাল চক্রবর্তী।

বাংলাদেশি এ মিডফিল্ডারকে প্রশংসায় ভাসানোর সঙ্গে তাকে খুব মিস করবেন বলে জানান তিনি।

কলকাতা মোহামেডানের হৃদয় জয় করা জামাল ভূঁইয়াও জানিয়েছেন এই দলকে অনেক মিস করবেন।

জাতীয় দলের জন্যই আগেভাগে ক্লাব ছাড়ছেন বলে লাল-সবুজের জার্সি গায়ে জড়াতে তর সইছে না বাংলাদেশ ফুটবলের এ পোস্টারবয়ের।

২৩-২৯ মার্চ নেপাল অনুষ্ঠিত হবে ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্ট। নেপাল ও বাংলাদেশের সঙ্গে এ টুর্নামেন্টে খেলবে কিরগিজস্তান অনূধ্ব-২৩ দল।

টুর্নামেন্টের জন্য জামালকে ছাড়া আজ মাঠের অনুশীলন শুরু করতে যাচ্ছে জেমি ডের দল। বাংলাদেশে আসবেন নাকি কলকাতা থেকে

সরাসরি নেপাল যাবেন জামাল, তা এখনও চূরান্ত না হলেও টুর্নামেন্টে খেলতে মুখিয়ে আছেন তিনি, জাতীয় দলেন জন্য আমি সবসময়

আমার সেরাটাই দেওয়ার চেষ্টা করি। একজন খেলোয়াড় হিসেবে জাতীয় দলে খেলা অবশ্যই গর্বের। যখন ক্যারিয়ার শেষ হবে,

তখন কিন্তু জাতীয় দলের মুহূর্তগুলো মিস করব। এ জন্য জাতীয় দলে সেরাটা দিতে হয়।

জামাল ভূঁইয়া

কলকাতা মোহামেডানে নিজের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে বলতে গিয়ে জামাল বলেন, সবকিছু মিলিয়ে এখানে আমার ভালো অভিজ্ঞতা হয়েছে। আমি যখন শুরুতে এখানে এসেছিলাম, তখন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলাম। আমার সঙ্গে দলটাও নতুন ছিল। একসঙ্গে অনুশীলন করতে পারিনি। কিছু দিন পর দেখলাম এটা ভালো একটা গ্রুপ। আসলে আমি গর্বিত।

ভবিষ্যতে সুযোগ পেলে আই লিগে ভারতের যে কোনো ক্লাবে কেলতে চান জামাল। আমি জানি না ভবিষ্যতে কী হবে, তবে একুটু বলতে চাই,

সুযো পেলে অবশ্যই খেলব। এখানকার সবাইকে অনেক মিস করব। শুধু মাঠের পারফর্যোন্সে নয়, মাঠের বাইরের আচরণ দিয়ে সবাইকে মুগ্ধ করেছেন জামাল।

কলকাতার মোহামেডানে কোচ শঙ্করলাল চক্রবর্তী বলেই দিলেন, জামালকে খুব মিস করব, আমি আগেই বলেছি জামাল হলো

একজন ভালো মানুষ, ভালো নেতা এবং ভালো খেলোয়াড়। তার জন্য এটা শেষ ম্যাচ। কারণ জাতীয় দলের হয়ে সামনে খেলা আছে।

তাকে আমরা খুব মিস করব। আসলে বিশ্বের সব জায়গাতেই এমনটি হয়ে থাকে। তবে জামাল আমাদের হৃদয়ে থাকবে সবসময়।