tag: মালনীছড়া চা বাগান বাংলাদেশের সিলেট জেলায় অবস্থিত। আমাদের খবর
Mon. Nov 30th, 2020

আমাদের খবর

খবরের সাথে সব সময়

মালনীছড়া চা বাগান বাংলাদেশের সিলেট জেলায় অবস্থিত।

1 min read
মালনীছড়া চা বাগান

মালনীছড়া চা বাগান বাংলাদেশের সিলেট জেলায় অবস্থিত। বাংলাদেশ এর সিলেট জেলায় অবস্থিত মালনীছড়া চা বাগান উপমহাদেশের  সবথেকে বড় এবং সর্বপ্রথম প্রতিষ্ঠিত চা বাগান। ১৮৪৯ সালে লর্ড হার্ডসনের হাত ধরে ১৫০০ একর জায়গার উপর এই বাগানটির যাত্রা শুরু হয়। বর্তমানে এই চা বাগানটি বেসরকারী ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত। সুন্দর সময় কাটানোর জন্য পর্যটকদের কাছে পছন্দের স্থান হিসাবে সুপরিচিতি পেয়েছে।

চা বাগানের আদিম, অপূর্ব সৌন্দর্য্য দেখতে হলে আপনাকে যেতে হবে সিলেট আম্বরখানা থেকে বিমানবন্দরের পথে।

আম্বরখানা থেকে স্বল্প দূরত্বে অবস্থিত মালনীছড়া চা বাগানে। তবে বাগানে প্রবেশের পূর্বে অনাকাঙ্ক্ষিত জটিলতা এড়াতে

তাদের অনুমতি নিয়ে নেয়া ভাল। বর্তমানে এখানে চা-এর পাশা পাশি কমলা এবং রাবারের চাষ করা হচ্ছে।

ভিডিও লিংকঃ মালনীছড়া চা বাগান

কিভাবে যাবেন

সিলেট শহরের আম্বরখানা থেকে রিকশা, অটোরিক্সা কিংবা সিএনজি ভাড়া করে মালনীছড়া চা বাগানে যেতে পারবেন। আম্বরখানা পয়েন্ট থেকে সিএনজিতে চড়ে যেতে ১০ মিনিট এবং রিকশায় ২৫ মিনিট সময় লাগে।

ঢাকা থেকে সিলেট কিভাবে যাবেন?

গাবতলী,  সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল, ফকিরাপুল, মহাখালী, উত্তরা থেকে। যে বাস গুলি সিলেটে যায় তাদের বেশ কিছু নাম আমি

উল্লেখ্য করছি- গ্রীন লাইন, সৌদিয়া, এস আলম, শ্যামলি ও এনা পরিবহন। এসি  এবং নন এসি বাস যাতায়াত করে, এগুলোর

ভাড়া সাধারণত এসি ৭০০ থেকে ১২০০ টাকার মধ্যে এবং নন এসি ৪০০ টাকা থেকে ৪৮০টাকা।

ঢাকা থেকে ট্রেনে করে সিলেট যেতে কমলাপুর অথবা বিমান বন্দর রেলওয়ে স্টেশান হতে উপবন, জয়ন্তিকা, পারাবত অথবা

কালনী এক্সপ্রেস ট্রেনকে বেছে নিতে পারেন আপনার ভ্রমণ সঙ্গী হিসাবে।

ঢাকা থেকে আকাশ পথে বিমানে  সিলেট যেতে পারেন। শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিমান বাংলাদেশ, নভোএয়ার এবং ইউএস বাংলার বিমান নিয়মিতভাবে সিলেটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়।

মালনীছড়া চা বাগান

চট্টগ্রাম থেকে বাস, ট্রেন ও বিমানে সিলেট যাওয়া যায়। সিলেট যেতে চট্টগ্রাম থেকে ট্রেনে পাহাড়িকা এবং উদয়ন এক্সপ্রেস নামের দুটি ট্রেন সপ্তাহে ৬ দিন চলাচল করে।

কোথায় খাবেন

মালনীছড়া চা বাগান এলাকায় খাবারের তেমন কোন ব্যবস্থা নেই। তবে জিন্দাবাজার এলাকায় বেশকিছু জনপ্রিয় রেস্তোরা রয়েছে। যার মধ্যে পানশী, পাঁচভাই, ভোজনবাড়ি, প্রীতিরাজ, স্পাইসি এবং রয়েলশেফ রেস্টুরেন্ট উল্লেখযোগ্য। এছাড়া সিলেটে তুমুল জনপ্রিয় সাতকরা এবং আথনী পোলাও খেতে পারেন।

কোথায় থাকবেন

ভালো মানের হোটেলে থাকতে চলে যেতে পারেন হযরত শাহজালাল (রঃ) এর দরগা এলাকায়।

এখানে ৩০০ থেকে ৩০০০ টাকার মধ্যে বিভিন্ন ক্যাটাগরির এসি, নন-এসি রুম পাবেন।

সিলেটে বেশ কিছু আবাসিক হোটেলের মধ্যে রয়েছে-

হোটেল রোজ ভিউ ইন্টারন্যাশনাল (০৮২১-৭২১৮৩৫, ২৮৩১-২১৫০৮-১৪, ২৮৩১৫১৬-২১),

নাজিমগড় রিসোর্ট (০৮২১-২৮৭০৩৩৮-৯), হোটেল ফরচুন গার্ডেন (০৮২১-৭১৫৫৯০, ৭২২৪৯৯),

ডালাস হোটেল (০৮২১-৭২০৯৪৫, ৭২০৯২৯),

হোটেল সুপ্রিম (০৮২১-৮১৩১৬৯, ৭২০৭৫১, ৮১৩১৭২, ৮১৩১৭৩, ০১৭১১-১৯৭০১২, ০১৬৭৪-০৭৪১৫৭),

হিলটাউন হোটেল (০৮২১-৭১৮২৬৩, ০১৭১১-৩৩২৩৭১, ৭১৬০৭৭)।

আশেপাশের দর্শনীয় স্থান

সিলেট শহরের আশ পাশের আরও অনেক দর্শনীয় স্থানে ভ্রমণ করতে পারেন তার মধ্যে বেশ কিছু পর্যটন স্থান হলো- হযরত শাহজালালের মাজার, হযরত শাহপরাণের মাজার, জাফলং, বিছনাকান্দি, রাতারগুল, লোভাছড়া, লালাখাল, পান্থুমাই ঝর্ণা, সংগ্রামপুঞ্জি ঝর্ণা, আলী আমজাদের ঘড়ি, হাকালুকি হাওর, ভোলাগঞ্জ, রাতারগুল সোয়াম ফরেষ্ট, ড্রিমল্যান্ড পার্ক, জাকারিয়া সিটি ইত্যাদি।

আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশ-ভারত রুটে ইউএস-বাংলা ফ্লাইট শুরু।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *