April 20, 2021

আমাদের খবর

খবরের সাথে সব সময়


Warning: sprintf(): Too few arguments in /home/customer/www/amaderkhabor.com/public_html/wp-content/themes/newsphere/lib/breadcrumb-trail/inc/breadcrumbs.php on line 254

ই-কমার্সে বিদেশিদের বিনিয়োগের সুবর্ণসুযোগ

1 min read
ই-কমার্সে বিদেশিদের বিনিয়োগের সুবর্ণসুযোগ

ই-কমার্সে বিদেশিদের বিনিয়োগের সুবর্ণসুযোগ করে দিলেন প্রধানমন্ত্রী।

ই-কমার্স ব্যবসা জগতে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য এক নতুন সুবর্ণসুযোগ তৈরী হলো বাংলাদেশে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে, মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে সোমবার জাতীয় ডিজিটাল কমার্স নীতিমালার এই সংশোধন অনুমোদন দেওয়া হয়। আরো পড়ুনঃ ই-কমার্সে বিদেশিদের বিনিয়োগের সুবর্ণসুযোগ।

সভা শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের নীতিমালা সংশোধন নিয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন।

ডিজিটাল লেনদেন নিয়ে ২০১৮ সালের জুলাইতে ‘জাতীয় ডিজিটাল কমার্স নীতিমালা’ ও তথ্যপ্রযুক্তির পণ্য-সেবা বিক্রিয় নীতিমালা মন্ত্রিসভার অনুমোদন পায়।

পরবর্তীতে ৩১ জানুয়ারি থেকে এটা কার্যকর হয়।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, নীতিমালার আইনি কাঠামো (ধারা ৩.৬.৭) সংশোধন করে ডিজিটাল কমার্স খাতে বৈদেশিক বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ‘দেশীয় অংশীদার রাখার’ ও ‘দেশীয় শিল্পের স্বার্থসমূহকে প্রাধান্য দেওয়ার‘ শর্ত বাদ দেওয়া হয়েছে।

ই-কমার্সে বিদেশিদের বিনিয়োগের সুবর্ণসুযোগ

“আগের নীতিমালায় ছিল- ‘ডিজিটাল কমার্স খাতে বৈদেশিক বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বিদ্যমান বিধিবিধান প্রতিপালন করতে হবে; তবে বিদেশি ডিজিটাল কমার্স ইন্ডাস্ট্রি দেশীয় কোনো ইন্ডাস্ট্রির সাথে যৌথ বিনিয়োগ ছাড়া এককভাবে ব্যবসা পরিচালনা করতে পারবেন না।

দেশিয় ডিজিটাল কমার্স ইন্ডাস্ট্রির স্বার্থসমূহকে প্রাধান্য দেওয়া হবে’। আরো পড়ুনঃ ই-কমার্সে বিদেশিদের বিনিয়োগের সুবর্ণসুযোগ।

“এই নীতিমালাকে পরিবর্তন করে ‘ডিজিটাল কমার্সখাতে বৈদেশিক বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বিদ্যমান বিধিবিধান প্রতিপালন করতে’ শুধু এই অংশটুকু রাখা হয়েছে।”

অর্থাৎ, বিদেশি ডিজিটাল কমার্স ইন্ডাস্ট্রি দেশীয় কোনো ইন্ডাস্ট্রির সাথে যৌথ বিনিয়োগ ছাড়া এককভাবে ব্যবসা পরিচালনা করতে পারবেন। আগের নীতিমালায় যে বাধ্যবাধকতা রাখা হয়েছিল তা তুলে দিল সরকার ফলে বিদেশিদের আর কোন বাধা রইল না।

এছাড়া ডিজিটাল কমার্স নীতিমালা সংশোধনের ক্ষমতাও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের হাত থেকে মন্ত্রিসভা নিজের হাতে নিয়ে নিয়েছে বলে জানান আনোয়ারুল।

এখন থেকে এ নীতিমালা সংশোধন করতে হলে তা মন্ত্রিসভায় তুলতে হবে।